প্রায় সবাই জেনে গেছেন যে চেস্টার বেনিংটন আত্মহত্যা করেছেন। তারপর থেকেই সারা বিশ্বে তার কোটি কোটি ভক্তদের মনে প্রশ্ন কেন? সে সম্পর্কে যে তথ্যগুলো পাওয়া যায় সেগুলো হল –
• মূল কারণ সম্ভবত, ছোটবেলায় তার চেয়ে বয়সে কয়েক বছরের বড় একজন বন্ধুর দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন। তার ভাষ্যমতে যেটি ছিল From friendly touch to violation. সারা জীবনই এই বিষয়টি তার মধ্যে একটি ট্রমার মত কাজ করেছে। অনেকটা The Silence of the Lambs সিনেমার মত।
• এই ঘটনার পর ধীরে ধীরে তিনি ভয়ংকরভাবে মাদক এবং অ্যালকোহলের দিকে ঝুঁকে পড়েন। পরে এই কালো পথ থেকে সরে আসলেও সাম্প্রতিক কালে তিনি আবার মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন।
• এর আগে বিভিন্ন সাক্ষাতকারে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টার কথা জানিয়েছেন। বিশেষ করে প্রথম বিয়ের পর তিনি নিজেকে শেষ করে দেওয়ার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন।
• গায়ক ক্রিস কর্নেলের অনেক ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন তিনি। ক্রিস গত মে মাসে আত্মহত্যা করেন। এরপর মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছিলেন চেস্টার। ক্রিসকে উদ্দেশ্য করে লেখা এক চিঠিতে তিনি বলেন,“I can’t think of a world without you.” ক্রিসের দ্বারা তিনি গভীরভাবে প্রভাবিত হয়েছিলেন।
• ২০ জুলাই নিজেকে ফাঁসি দিলেন চেস্টার। আর এই দিনটিই ছিল প্রিয় বন্ধু ক্রিস কর্নেলের জন্মদিন।
কোটি কোটি ভক্তকে কাঁদালেন চেস্টার। কে ভাবতে পেরেছিল সারা বিশ্বের তরুণদের মনের কথা বলা মানুষটির মনে লুকিয়ে ছিল এত দুঃখ!

In the picture, Chester performing for the last time…

20246286_1803972639892924_8024791950992375649_n