ফেসবুকের নয়া দিগন্ত খুলে দেবে এই নতুন আবিষ্কার, মার্ক জুকেরবার্গের স্বপ্ন এখন উড়ছে সাহারা মরুভূমিতে

মাত্র দুই দিন হল, দুই বিলিয়ন লক্ষ্যমাত্রা পেরিয়েছেন মার্ক জুকেরবার্গ। সাফল্য উপভোগ করতে-না-করতেই মার্ক জুকেরবার্গ ছকে ফেলেছেন নতুন প্ল্যান। হাতের মুঠোয় পৃথিবীর এক তৃতীয়াংশ জনতা, এবার ছুঁতে হবে বাকি দুই তৃতীয়াংশকে। মানে এবার লক্ষ্য চার বিলিয়ন!

স্বপ্নটা প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছেন তিনি। আইডিয়ার স্তর পেরিয়ে বাস্তবে উড়ছে তাঁর স্বপ্ন-উড়ান। নাম অ্যাকিলা। এই অ্যাকিলা বাস্তবিকই একটি প্রশস্ত উড়ান, যা কোনও পাইলটের সাহায্যে ওড়ে না। ইংরেজি ভাষায় যাকে বলে- আনম্যানড ফ্লাইট।

ধরুন, আপনার কাছে কোনও ইন্টারনেট পরিষেবা নেই, এমনকি সুদূর ভবিষ্যতে হওয়াও সম্ভব নয়। কেননা আপনি থাকেন প্রত্যন্ত গ্রামে, যেখানে এখনও ইলেকট্রিসিটি পৌঁছয়নি। কিংবা কেউ হয়তো গভীর অরণ্যের বাসিন্দা। কেউ বা আছেন সমুদ্র-পরিবেষ্টিত দ্বীপে। তাঁরা সবাই ফেসবুক সংযোগ করতে পারবেন এই অ্যাকিলার সাহায্যে! অবিশ্বাস্য হলেও সত্যির খুব কাছে চলে এসেছেন জুকেরবার্গ।

অ্যাকিলার জ্বালানি সৌরশক্তি। তাই অতি অল্প খরচেই সম্ভবপর হবে এই অসাধ্যসাধন। সারা পৃথিবীর মানুষকে একই সুতোয় গাঁথার উদ্দেশ্য সফল হবে, কেউই আর বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকবেন না, এমনটাই আশা করেন তিনি। অতি সম্প্রতি সাহারা মরুভূমির বিস্তৃতিতে পরীক্ষামূলকভাবে ওড়ানো হল এই অ্যাকিলাকে। যাত্রাপথ জুড়ে অসংখ্য অজানা তথ্য সংগ্রহ করে এনেছে সে, যা আসলে ভবিষ্যৎদ্রষ্টা মার্কের ঠোঁটে হাসি ফুটিয়েছে।

হাসি ফুটতে চলেছে অনগ্রসর সব দেশের মানুষের মুখেও। ইন্টারনেট ছাড়াই যদি জনসংযোগ হয়, তাহলে অনেকের স্বপ্নই তো একসঙ্গে সফল হবে1-1-1-660x330