চীনের দুই বালক বাবা-মাকে খুঁজতে বাসের কাঠামোর নিচের অংশের ভেতর লুকিয়ে ৮০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। তবে তারা অক্ষত রয়েছে। বাসের নিচের কাঠামোতে ওই দুই বালকের অবস্থানরত ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটিতে অভিভাবকহীন শিশুদের কল্যাণমূলক ব্যবস্থা নিয়ে অনলাইনে তীব্র নিন্দার ঝড় বইছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে ওই দুই বালকের নাম প্রকাশ করা হয়নি। দক্ষিণাঞ্চলীয় গুয়াংশির দারিদ্র্যপীড়িত একটি গ্রাম থেকে তারা মা-বাবাকে খুঁজতে বেরিয়েছিল। পাশের প্রদেশ গুয়াডংয়ে কাজ করেন তাদের বাবা-মা। বালকেরা সেখানে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল।

ওই দুই বালকের শিক্ষক গত ২৩ নভেম্বর তাদের নিখোঁজ হওয়ার কথা জানান। ওই দিনই একটি স্টেশনে বিরতি নেওয়া একটি বাসের নিচের কাঠামোতে তাদের পাওয়া যায়। দৈনিক সাউদার্ন মর্নিং পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, ওই বালকদের বয়স ‘আনুমানিক আট থেকে নয় বছর’। একটি স্টেশনে থামার পর গাড়ির নিরাপত্তাকর্মীরা তাদের দেখতে পান।

গাড়িটি যাত্রাপথে তিন মাইল দীর্ঘ খাঁড়া ঢালু রাস্তা পার হয়। এরপরও শিশু দুটি অক্ষত থাকায় বাসের কর্মীরা বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। ওই পত্রিকাকে বাসের এক কর্মী বলেন, ‘শিশু দুটির গড়ন হালকা পাতলা হওয়ায় বাসের কাঠামোর নিচের অংশে তারা লুকাতে পেরেছিল। তিনি বলেন, উদ্ধারের পর শিশু দুটি কোনো প্রশ্নেরই জবাব দিচ্ছিল না। পরে তাঁরা নিশ্চিত হন যে, শিশুরা তাদের বাবা-মায়ের জন্য ব্যাকুল হয়েছিল।

দেশটির অনলাইন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ওই খবরের নিচে সহস্রাধিক উইবো ব্যবহারকারী ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। একজন বলেছেন, ‘চীনে বর্তমানে অনেক শিশু বাবা-মা থেকে বিচ্ছিন্ন। তাদের কে দেখাশোনা করছে?’chin