মন খারাপ হতেই পারত ড্যানিয়েল ওয়াইটের। ‘স্বপ্নের’ মানুষটি এভাবে দোরগোড়ায় এসে বিয়ে করছেন অন্যকে! না, ওয়াইটের বুকটা ‘‌ফাইট্টা’ যায়নি। বিরাট কোহলির বিয়ের খবরে বিষণ্ন সুরে গান বাঁধেননি, বরং শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নবদম্পতিকে।

ওয়াইটকে এতক্ষণে চিনে ফেলার কথা। না চিনলে আরেকবার মনে করিয়ে দেওয়া যাক, ইংলিশ ক্রিকেট দলের সদস্য ইনি। ২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলার সময় বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিলেন। টুইটারে ছোট্ট একটা টুইট করেছিলেন, ‘কোহলি, ম্যারি মি!’ কোহলির প্রতি এমন প্রেম দেখে ভারতীয় দর্শকেরাও ওয়াইটের ভক্ত হয়ে গিয়েছিল। সেই এক টুইট করেই রীতিমতো বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিলেন। প্রায় সব সংবাদমাধ্যম যে খবর করেছিল তাঁকে নিয়ে।
কোহলি ও ওয়াইটের এমন সম্পর্ক এরপর চমৎকার গতিতে চলেছে। ভারত সফরে গিয়ে কোহলির সঙ্গে ছবি তুলে সবাইকে দেখিয়েছেন। কোহলিও তাঁর ব্যাট উপহার দিয়েছেন ওয়াইটকে। সে উপহার সবাইকে দেখিয়েছেন ওয়াইট। তবে প্রেমটা যদি থেকেও থাকে, সেটি একতরফাই ছিল। ওয়াইটও জানতেন, কোহলির হৃদয়দুর্গ দখল করে রেখেছেন আরেক মহারানি।

গতকাল কোহলি ও আনুশকা টুইটারে নিজেদের দম্পতি হয়ে ওঠার কথা জানিয়েছেন। সেটা দেখে নবদম্পতিকে টুইটারেই অভিনন্দন জানিয়ে দিয়েছেন ওয়াইট। কোহলির ভক্তরা এতেও মজা খুঁজে নিয়েছেন। এক ভক্ত সেটা রিটুইট করে লিখেছেন, ‘জীবন থেমে থাকে না…!’ মজাটা বুঝতে পেরে ওয়াইটও দিয়েছেন হাসতে হাসতে চোখে পানি আনার ইমো।
তবে এটা ঠিক, কোহলির বিয়েতে নাম না-জানা অনেক তরুণীর মন নিশ্চয়ই ভেঙেছে। যেমন আনুশকা মন ভেঙেছেন অনেক নাম না-জানা তরুণের। যারা গাইছে: ‘সানাইয়ের সুর, নিয়ে যাবে দূর, একটু একটু করে তোমায়, আজকে রাতে তুমি অন্যের হবে, ভাবতেই জলে চোখ ভিজে যায়…’!

BD Online Mediawhit