জিম সেশন শেষে আজ সকালে বিসিবি একাডেমি মাঠে মাশরাফি বিন মুর্তজার সঙ্গে খানিকক্ষণ কথা বললেন । অনুজ সতীর্থের কাঁধে হাত রেখে মাশরাফি কী বলছিলেন, সেটি অবশ্য দূর থেকে বোঝার উপায় নেই।

বছরের প্রথম দিনেই যে বড় শাস্তি পেয়েছেন সাব্বির, একজন অধিনায়ক হিসেবে তাঁকে নিশ্চয়ই কিছু উপদেশ দেওয়ার আছে মাশরাফির। জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডে এক কিশোর দর্শককে মারধর, ম্যাচ অফিশিয়ালদের সঙ্গে অশোভন আচরণ ও ম্যাচ চলার সময় নিয়মবহির্ভূত মুঠোফোন ব্যবহার করায় সাব্বিরকে বড় শাস্তির সুপারিশ করেছে বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটি। শাস্তির মধ্যে আছে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে সাব্বিরকে বাদ দেওয়া, ২০ লাখ টাকা জরিমানা ও আগামী ছয় মাস ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষেধাজ্ঞা।

দেশের ক্রীড়াঙ্গনে এই মুহূর্তে সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা সাব্বিরের শাস্তি। তবে যেটা হয়ে গেছে, সেটি নিয়ে পড়ে থাকতে চান না মাশরাফি। তিনি মনে করেন, সাব্বিরের শাস্তি থেকে সবাই শিক্ষা নেবে, যাতে একই ভুল বারবার না হয়। আজ দুপুরে বিসিবি একাডেমি মাঠে সংবাদমাধ্যমকে বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক বললেন, ‘বিসিবির অধীনে আমরা সবাই। এটা মেনে নেওয়া আমাদের সবার দায়িত্ব। আমাদের সবাই অনুসরণ করে। তরুণ খেলোয়াড় যারা উঠে আসছে, অনূর্ধ্ব-১৫, ১৭, ১৯ যারা খেলছে, তারাও আমাদের অনুসরণ করে। শুধু মাঠে নয়, মাঠের বাইরের কাজগুলো ঠিকঠাক করাও আমাদের দায়িত্ব।’

মাশরাফি যোগ করেছেন, ‘সামনে যেন আমরা এমন ভুল না করি। শুধু সাব্বিরের যে শাস্তি হয়েছে, এটা আর কারও যেন না হয়, সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে। আমাদের কাজ ঠিকঠাক অনুশীলন করা ও ভালো খেলা। যেহেতু আমাদের সবাই অনুসরণ করে, আমাদের নিশ্চিত করতে হবে, মাঠের বাইরের কাজগুলো যেন ঠিকঠাকভাবে করি। এটা শুধু খেলা নয়, জীবনের অনেক বড় অংশ।’

BD Online Media

masrafi 1