দুটো বড় ঘটনার জন্য এ বছর অনেকেরই দৃষ্টি থাকবে ভ্লাদিমির পুতিনের রাশিয়ার দিকে। এর একটি দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এবং অপরটি বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর। এর একটি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিয়ে সেলফি তুলতে ভোটাররা পাবেন আইফোন জেতার সুযোগ। তবে সেলফিটি অন্যদের চেয়ে সেরা হতে হবে।

মার্চে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিয়ে সেলফি তুলে আইফোন জেতার সুযোগ করে দিয়েছে ক্রেমলিন। তাদের বক্তব্য হলো, এতে করে ভোটার সংখ্যার উপস্থিতি বাড়বে।

টেলিগ্রাফ ও পলিটিকোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৮ মার্চ রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে ভোটারদের জন্য এক অভিনব সুযোগ এনেছে দেশটির সরকার। নির্বাচনে ভোট দেওয়ার পরই সেলফি তোলার একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। ভোট দেওয়ার পরই সেলফি তুলে তা একটি মেইলের ঠিকানায় পাঠাতে হবে। সেরা সেলফি যিনি বা যাঁরা তুলবেন, অ্যাপলের আইফোন যাবে তাঁর বা তাঁদের পকেটে।

নির্বাচনের দিনে ভোটারদের মধ্যে উৎসবের আমেজ আনতে রাশিয়া নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। সেলফি প্রতিযোগিতা তার মধ্যে একটি। দেশটির মস্কো টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, গত বছরের সেপ্টেম্বরে দেশটির সাতটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটারদের আইফোন ৭, আইপ্যাড, অ্যাপল ওয়াচ পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়েছে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি বাড়াতে ‘ছবি ও ভোট’ নামের এ পরিকল্পনাকে সফল করতে খেলোয়াড় ও অভিনয় শিল্পীদেরও সাহায্য নেওয়া হবে।

মার্চের ভোটে ভ্লাদিমির পুতিন চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হচ্ছেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তবে ক্রেমলিন কোনো ঝুঁকি নিতে চায় না। নির্বাচনে কমপক্ষে ৭০ শতাংশ ভোট পড়ুক এটা তারা চায়। এর সঙ্গে ক্রেমলিন চায় যে ৭০ শতাংশের বেশি ভোটে পুতিনের জয়। আর এটা নিশ্চিত করতে নানা পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করেছে ক্রেমলিন।

তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা মনে করছেন, নির্বাচনে এত ভোটার উপস্থিতি হবে না। কারণ রাশিয়ায় সরকারবিরোধী রাজনৈতিক নেতা আলেক্সেই নাভালনিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে সব চেষ্টাই চলছে। আর তা হয়ে গেলে আলেক্সেই নাভালনির সমর্থকের ভোটকেন্দ্রের দিকে পা-ও মাড়াবেন না। অনেক মানুষ ভোট দিতে যাবেন না।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, মার্চের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নেবেন। যারা তার আদর্শ ধারণ করে এবং তার ওপর বিশ্বাস রাখে—এমন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের সমর্থন চেয়েছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে পুতিন বলেছেন, ‘রুশ জনগণের কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি সমর্থন আশা করছি।’

ইউনাইটেড রাশিয়া দলের হয়ে ২০১২ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়লাভ করেন পুতিন। রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ বর্তমানে এই দলের সভাপতি। পুতিন মনে করছেন, নির্দিষ্ট একটি দলের প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিলে হয়তো অধিকাংশ ভোটারের সমর্থন তিনি পাবেন না। রাশিয়া গণমতামত গবেষণা কেন্দ্রের সর্বশেষ জরিপে দেখা যায়, শতকরা ৮০ ভাগ রুশ পুতিনকে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিতে তৈরি।

BD Online Media

putin 1